Bangladesh Police

Apps

বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে
পুলিশ আছে জনতার পাশে

Achievement & Success

স্পেশাল ব্রাঞ্চ ওয়েবসাইটের শুভ উদ্বোধন এবং স্ট্র্যাটেজিক প্ল্যান ও পরিদর্শন নির্দেশিকার মোড়ক উন্মোচন

ঢাকা, ০২ অক্টোবর ২০২৩ খ্রিঃ

 

স্পেশাল ব্রাঞ্চ বাংলাদেশ পুলিশের একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিভাগ। এই বিভাগের রয়েছে সমৃদ্ধ ইতিহাস ও ঐতিহ্য। ১৮৮৭ খ্রিস্টাব্দের ২৩ ডিসেম্বর তৎকালীন ভারতীয় উপমহাদেশে সেন্ট্রাল স্পেশাল ব্রাঞ্চ নামে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। ইতিহাস পরিক্রমার সাথে সাথে বিভিন্ন নাম পরিবর্তনের মাধ্যমে ১৯৬২ খ্রি. পুনরায় এই বিভাগের নামকরণ ‘স্পেশাল ব্রাঞ্চ’ করা হয়। প্রতিষ্ঠার পর থেকে স্পেশাল ব্রাঞ্চ অভ্যন্তরীণ স্থিতিশীলতা এবং জাতীয় নিরাপত্তার উন্নয়নে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। সরকার ঘোষিত ডিজিটাল বাংলাদেশ এবং স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনের কর্মসূচির সাথে সামঞ্জস্য রেখে স্পেশাল ব্রাঞ্চ অটোমেশনের মাধ্যমে কৌশলগত ইন্টেলিজেন্স ম্যানেজমেন্ট, অভিবাসন সেবা, আন্তর্জাতিক আগমন-বহির্গমন নিয়ন্ত্রণ, পাসপোর্ট ভেরিফিকেশন, নিরাপত্তা ছাড়পত্র প্রদান ইত্যাদি সহজতর করেছে। এ সকল সেবা সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে তৈরি করা হয়েছে স্পেশাল ব্রাঞ্চ ওয়েবসাইট (www.specialbranch.gov.bd)। এই ওয়েবসাইটটি ৪টি থিমের উপর ভিত্তি করে নির্মাণ করা হয়েছে।

 

থিমেটিক এরিয়া-১: মহান মুক্তিযুদ্ধ, রাজারবাগে মহান মুক্তিযুদ্ধে প্রথম প্রতিরোধ, ভাষা শহীদ এর চেতনানির্দেশক ও বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ কেপিআই সমূহের ছবি, এসবির ইতিহাস, এসবি প্রধানের বক্তব্য, মিশন, ভিশন, বাংলাদেশ পুলিশ ও অন্যান্য অফিসের বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ ওয়েবসাইটের লিংক সন্নিবেশিত হয়েছে।

 

থিমেটিক এরিয়া-২: এক নজরে এসবি সেবা সম্পর্কিত বিভিন্ন উইং এর সংক্ষিপ্ত বিবরণ দেওয়া রয়েছে। এছাড়াও FAQ সম্পর্কিত তথ্য সন্নিবেশিত হয়েছে।

 

থিমেটিক এরিয়া-৩: Honor & Pride - বাংলাদেশ পুলিশের আত্মত্যাগ ও সম্মানের বিষয়গুলো এই এরিয়াতে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। মহান মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশ পুলিশের শাহাদাতবরণকারী সদস্যদের নাম ও বীরত্বপূর্ণ ভূমিকা, প্রতিষ্ঠান হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশে আত্মত্যাগ, বাংলাদেশ পুলিশের স্বাধীনতা পদক অর্জন, প্রতিবছর কর্তব্যকালীন অবস্থায় আত্মত্যাগকারী বাংলাদেশ পুলিশের সদস্যবৃন্দের তালিকা ও সংক্ষিপ্ত বিবরণ, অন্যান্য যেকোন অর্জন এখানে সন্নিবেশিত হবে।

 

থিমেটিক এরিয়া-৪: যোগাযোগ এবং তথ্যবিনিময়। এটি একটি ইন্টারঅ্যাকটিভ প্ল্যাটফর্ম হিসেবে ব্যবহৃত হবে। এখানে বাংলাদেশ পুলিশের সংশ্লিষ্ট সদস্যদের সাথে যোগাযোগের আদান প্রদানের মাধ্যম হিসেবে ব্যবহৃত হবে। এক্ষেত্রে লগ ইন আইডি থাকবে। এছাড়া বাংলাদেশে বসবাসরত বা প্রবাসী যেকোন নাগরিক, বিদেশি যেকোন নাগরিক, তথ্য জানাতে চাইলে নিজের পরিচয় গোপন করে অথবা পরিচয় দিয়ে এই প্লাটফর্মে তথ্য আদান প্রদান করতে পারবে। অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ প্যানেল যেকোন চাহিত তথ্যের বিষয়ে দ্রুততম সময়ে ব্যবস্থা নিবেন।

এই ওয়েবসাইটে পাসপোর্ট, ভিসা, দ্বৈত নাগরিকত্বসহ নানাবিধ প্রাসঙ্গিক রুলস ও জনগুরুত্বপূর্ণ তথ্য সন্নিবেশিত থাকবে। এছাড়াও ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্যাদি ইংরেজির পাশাপাশি বিভিন্ন ভাষায় অনুবাদযোগ্য হওয়ায় সহজেই দেশী বিদেশী সেবা প্রত্যাশীগণ এ সংক্রান্ত তথ্য পাবেন।

 

পরিবর্তিত বিশ্বে নিত্যনতুন হুমকি ও চ্যালেঞ্জ কার্যকরভাবে মোকাবেলার ক্ষেত্রে যেকোন সংস্থার জন্য স্ট্র্যাটেজিক প্ল্যান অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ যা একটি সংস্থার সক্ষমতা বৃদ্ধি ও কার্যক্ষমতা উন্নয়নে ভূমিকা রাখে। এ লক্ষ্যকে সামনে রেখে স্পেশাল ব্রাঞ্চের জন্য পাঁচ বছর মেয়াদী (২০২৩-২০২৮) একটি স্ট্র্যাটেজিক প্ল্যান প্রণয়ন করা হয়েছে। অপরদিকে পেশাগত উৎকর্ষতা আনয়ন ও প্রযুক্তিগত সক্ষমতা অর্জনের ক্ষেত্রে পুলিশ সুপার ডিএসবি/ইউনিট প্রধানের সফলতা মূল্যায়ণ, গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ, বিশ্লেষণ ও গোয়েন্দা কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে সীমাবদ্ধতা ও অর্জনসমূহ, গোয়েন্দা প্রশিক্ষণের উদ্যোগ গ্রহণ, তথ্য আদান প্রদানের ক্ষেত্রে পারস্পরিক সহযোগিতা ইত্যাদি কার্যক্রম আইন ও বিধি মোতাবেক নিশ্চিত করার জন্য পরিদর্শন একটি গুরুত্বপূর্ণ পদ্ধতি। ডিএসবি ম্যানুয়ালের আলোকে পরিদর্শন সংক্রান্ত এই নির্দেশিকা প্রণয়নের প্রয়োজনীয়তা অনুভূত হয়েছে। তারই পরিপ্রেক্ষিতে এ পরিদর্শন নির্দেশিকাটি প্রণীত হয়েছে। এই তিনটি উদ্যোগ বাস্তবায়নের ফলে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিতের মাধ্যমে স্পেশাল ব্রাঞ্চ এর কার্যক্রমে আরো গতিশীলতা আসবে।

 

অদ্য ০২ অক্টোবর ২০২৩ খ্রিঃ, সোমবার সকাল ১১:০০ ঘটিকায় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা জনাব আসাদুজ্জামান খান, এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে স্পেশাল ব্রাঞ্চের ওয়েবসাইটের শুভ উদ্বোধন এবং স্ট্র্যাটেজিক প্ল্যান ও পরিদর্শন নির্দেশিকার মোড়ক উন্মোচন করেন। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বিপিএম (বার), পিপিএম, ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ, বাংলাদেশ এবং জনাব মোঃ আবদুল্লাহ আল মাসুদ চৌধুরী, সচিব, সুরক্ষা সেবা বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

 

এছাড়াও ঢাকাস্থ পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটের প্রধানগণ ও অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন স্পেশাল ব্রাঞ্চের প্রধান জনাব মোঃ মনিরুল ইসলাম বিপিএম (বার), পিপিএম (বার), অতিরিক্ত আইজিপি (গ্রেড-১), বাংলাদেশ পুলিশ।

 

 
All rights reserved | Copyright © 2014 - 2024 | Designed & Developed by : PeopleNTech