Bangladesh Police

Apps

বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে
পুলিশ আছে জনতার পাশে

Achievement & Success

আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার এবং বৈশ্বিক পরিবর্তিত সমাজ ব্যবস্থায় অপরাধ ও অপরাধীদের কার্যক্রমে বহুমাত্রিকতা সংযোজিত হয়েছে: আইজিপি

ঢাকা, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ খ্রি.

 

পুলিশ স্টাফ কলেজ বাংলাদেশ-এ “Master of Applied Criminology and Police Management” শীর্ষক Masters Programme এর ৮ম ব্যাচের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ইন্সপেক্টর ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ, বাংলাদেশ জনাব চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন, বিপিএম (বার), পিপিএম মহোদয় বলেন, আধুনিক প্রযুক্তির ব্যবহার এবং বৈশ্বিক পরিবর্তিত সমাজ ব্যবস্থায় অপরাধ ও অপরাধীদের কার্যক্রমে বহুমাত্রিকতা সংযোজিত হয়েছে। তিনি এ ধরণের অপরাধ মোকাবেলায় বাংলাদেশ পুলিশের সদস্যদেরকে অপরাধ বিষয়ক উচ্চ শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি উল্লেখ করেন মাঠ পর্যায়ে যে সকল অপরাধ সংঘটিত হতো এখন সেটি ছাড়াও তথ্য প্রযুক্তির ও যোগাযোগের কার্যক্রম বৃদ্ধি পাওয়ায় প্রচলিত অপরাধের ধরণ যেমন পরিবর্তিত হয়েছে তেমনি ডিজিটালাইজড পদ্ধতির অপরাধ সংযোজিত হয়েছে। বাংলাদেশ পুলিশ উচ্চতর শিক্ষা ও প্রযুক্তিগত উন্নয়নের মাধ্যমে সেসব অপরাধ মোকাবিলায় নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, বৈশ্বিক অপরাধের প্রভাবে বাংলাদেশেও সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ ও উগ্রবাদের মতো অপরাধ যুক্ত হয়েছে। বাংলাদেশ পুলিশ সফলতার সাথে এধরনের দেশীয়, আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক বহুমাত্রিক অপরাধ মোকাবিলায় শিক্ষা, প্রশিক্ষণ ও গবেষণা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। তিনি বিশেষভাবে উল্লেখ করেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তরিক ইচ্ছার ফলে ২০০০ সালে পুলিশ স্টাফ কলেজ বাংলাদেশ এর যাত্রা শুরু করে প্রশিক্ষণ ও গবেষণা বিষয়ে বিশেষ অবদান রেখে চলেছে।

কোর্স উদ্বোধনের পূর্বে তিনি পুলিশ স্টাফ কলেজের নবনির্মিত সাইবার ল্যাব এর উদ্বোধন করেন এবং পরবর্তীতে আন্তর্জাতিক পুলিশ গবেষণা ও উদ্ভাবন কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। তিনি উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার ক্ষেত্রে সার্বিক সহায়তার আশ্বাস প্রদান করেন।

ড. মল্লিক ফখরুল ইসলাম, বিপিএম, পিপিএম, রেক্টর, পুলিশ স্টাফ কলেজ বাংলাদেশ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। তিনি বলেন, শিক্ষাবর্ষ ২০১৫-২০১৬ হতে “Master of Applied Criminology and Police Management” শীর্ষক ১ বছর মেয়াদী মাস্টার্স প্রোগ্রাম জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে পুলিশ স্টাফ কলেজ বাংলাদেশ এ পরিচালিত হচ্ছে। প্রফেশনাল এ মাস্টার্স প্রোগ্রামে পুলিশ অফিসার ছাড়াও অন্যান্য পেশায় নিয়োজিত শিক্ষার্থীগণের ভর্তির সুযোগ রয়েছে। ৮ম ব্যাচে পুলিশ সদস্য ছাড়াও সামরিক ও বেসামরিক বিভাগের কর্মকর্তা, আইনজীবি, শিক্ষক, উন্নয়নকর্মী প্রমূখ ভর্তি হয়েছেন। এ কোর্সের মাধ্যমে অপরাধ বিষয়ক পেশাগত জ্ঞান ও দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে স্মার্ট বাংলাদেশে স্মার্ট পুলিশিং এর ভিত্তি সুদৃঢ় করতে সহায়তা করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। তিনি আইজিপি মহোদয়কে তাঁর আন্তরিক সহযোগিতার জন্য বিশেষভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। পাশাপাশি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধিসহ আগত অতিথিগণকে ধন্যবাদ জানান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ব্যারিস্টার মোঃ হারুন অর রশিদ, বিপিএম, অতিরিক্ত আইজিপি, পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স, ঢাকা। স্বাগত বক্তব্য রাখেন এমডিএস জনাব মো: গোলাম রসুল।

উক্ত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ, বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, মাস্টার্স প্রোগ্রামের শিক্ষার্থী কর্মকর্তাবৃন্দ এবং পুলিশ স্টাফ কলেজের অনুষদবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

 

 
All rights reserved | Copyright © 2014 - 2024 | Designed & Developed by : PeopleNTech